রাতের অন্ধকারে পুড়িয়ে দেওয়া হল সরস্বতী দেবীর মন্দির ভেঙে দেওয়া হল প্রতিমা৷

সরস্বতী দেবীর মূর্তি ভাঙচুর এবং মণ্ডপ পোড়ানোকে কেন্দ্র করে বিশাল উত্তেজনা ছড়ালো হাওড়ার  নিকটবর্তী বালিচিকুরি এলাকায়।
পুজোর আগের রাতে সরস্বতী দেবীর  প্রতিমার মন্ডপ সহ প্যান্ডেল পুড়িয়ে ছাই করে দিল হাওড়ার দশনগর থানার অধীন বালিচিকুরি গ্রামে। ঘটনার জেরে প্রবল উত্তেজনা ছড়িছে ঐ এলাকায়। প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও গ্রীন স্টারস ক্লাবের উদ্যোগে সরস্বতী বন্দনার আয়োজন করা হয়েছিল।
ক্লাবের সভাপতি বলেন,আমরা এই মন্ডপে ২৬ শে জানুয়ারী অবধি বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন রেখে ছিলাম। কে বা কারা গভীর রাতে অন্ধকারে এসে সব কিছু অগ্নিদগ্ধ করে শেষ করে দিয়েগেল। ক্লাবের এক সদস্য বলেন আমরা বিভিন্ন কাজ সেরে রাত ২/২’৩০  নাগাদ বাড়ি ফিরি কিছুক্ষন বাদে শুনতে পাই আগুন লাগিয়ে মন্দির ছারকার করেদিল।তখন আমরা এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করি কিন্তু ততক্ষনে যা হবার হয়ে গিয়েছিল I দুষ্কৃতীরা মন্দিরের মধ্যেকার দেবী মূর্তিকেও ভেঙে দেয় I

স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য অনুযায়ী যারা অসামাজিক কাজের সাথে যুক্ত তারাই হয়তো এই ঘটনা ঘটিয়েছে।এছাড়ও বলেন এলাকায় মদ, জুয়ার আসর বসত সে গুলি তুলে দেওয়ায় হয়তো সেই দুস্কৃতিরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে।তবে প্রশাসন এই অমানবিক ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে, যদিও এখনও কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি।

তবে বিজেপি এব্যাপারে তৃণমূলকে আক্রমন করতে ছাড়েনিI তাদের বক্তব্য শাসক দলের হিন্দু বিরোধী নীতির কারণেই রাজ্যে এইসব ঘটনা বেড়েই চলেছে I শাসক দল হিন্দুদের ব্যাপারে উদাসীন মনোভাব নিয়ে চলছেI যদিও প্রশাসন এব্যাপারে যথেষ্ট কড়া পদক্ষেপ নেবে বলে আশ্বাস দিয়েছে ৷ তাদের বক্তব্য দোষী যেই হোক না কেন তারা ছাড় পাবে না সকলকে কড়া শাস্তি দেওয়া হবে ৷ তবে যে বা যারাই এই ঘটনা ঘটিয়ে থাকুক না কেন সকলকে সকল ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে তবেই রাজ্যের শান্তি শৃঙ্খলা বজিয়ে থাকবে সেটা বলাই বাহুল্য ৷

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*