রাষ্ট্রপতির সিদ্ধান্তে ২০ জন আপ বিধায়কের পদ বাতিল হয়ে গেল৷

 নির্বাচন কমিশনের দাবিকে স্বীকৃতি দিয়ে আজ রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ ২০ জন আপ বিধায়কের পদ খারিজ করলেন ৷ নির্বাচন কমিশন ২০ জন আপ বিধায়ককে অবৈধভাবে লাভ জনক পদ বা অফিস অফ প্রফিট ইস্যুতে তাদের পদ বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল৷ গত শুক্রবার সেই সিদ্ধান্ত অনুমোদনের জন্য রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের কাছে পাঠানো হয়৷ আজ রবিবার রাষ্ট্রপতি সেই দাবিকে  সিলমোহর দেওয়ায় দিল্লিতে উপনির্বাচন অবধারিত হয়ে পড়ল৷

এদিন রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে বিবৃতি জারি করে বলা হয় ” বিষয়টি গভীরভাবে পর্যালোচনা করার পর আমি রামনাথ কোবিন্দ ভারতের রাষ্ট্রপতির পদাধিকার বলে দিল্লি বিধানসভার ২০ জন আপ বিধায়কের পদ বাতিলের সিদ্ধান্ত নিলাম৷’’

এব্যাপারে আম আদমি পার্টির মন্ত্রী গোপাল রাই বলেন , আমরা ভেবেছিলাম রাষ্ট্রপতি হয়তো আমাদের বক্তব্য শুনে তারপর সিদ্ধান্ত নেবেন , কিন্তু এখন সংবাদ মাধ্যম থেকে আমরা এই বিষয়টি জানতে পারলাম৷ তিনি আরো বলেন আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি এই রায়ের বিরুদ্ধে আমরা হাইকোর্টে যাবো এবং প্রয়োজন পড়লে সুপ্রিম কোর্টেও যেতে  পারিI

আপ নেতা আশুতোষ দলীয় বিধায়কদের সদস্যপদ খারিজের পদক্ষেপকে ‘অসাংবিধানিক”, গণতন্ত্রের পক্ষে বিপজ্জনক’ আখ্যা দিয়েছেন। আজ অরবিন্দ কেজরীবালও এক সভা থেকে কেন্দ্র সরকারকে আক্রমন করে বলেন , কেন্দ্রীয় সরকার প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়েই এই কাজ করেছেন কিন্তু সত্যের জয় হবেইI

এদিকে কংগ্রেস দাবি করেন আম আদমি পার্টি এই বিষয়ে বিজেপি ও ইলেকশন কমিশন থেকে সাহায্য পেয়েছে এজন্যই বিষয়টি এতদিন ঝুলে ছিল৷ কংগ্রেস নেতা অজয় মাকেন বলেন, এই ২০জন বিধায়কের পদ যদি ২২শে ডিসেম্বরের আগে খারিজ করা হতো তবে ওনারা রাজ্যসভায় ভোট দিতে পারতেন না আর সে কারণেই বিজেপি ও ইলেকশন কমিশন বিষয়টি নিয়ে এত গড়িমসি করেছে ৷ তবে এব্যাপারে বিজেপি নেত্রী মিনাক্ষী লেখি বলেন নির্বাচন কমিশন একটি স্বাধীন সংস্থা তাদের উপর এই আরোপ করা ঠিক নয় তাছাড়া আমরা নির্বাচন কমিশনকে কেন চাপ দিতে যাবI

যদিও এই ২০জন বিধায়কের পদ বাতিল হওয়ার পরও তা দিল্লির সরকারের উপর প্রভাব পড়বে না কারণ ৭০ সদস্য বিশিষ্ট দিল্লি বিধান সভায় আম আদমি পার্টির মোট বিধায়ক সংখ্যা ৬৬ জন এই ২০জন সদস্যের পদ বাতিল হয়ে যাওয়ার পরও তাদের বিধায়ক  সংখ্যা থাকবে ৪৪ জন যা সরকার চালানোর পক্ষে যথেষ্টI তবে বিরোধীরা একে আমি আদমি পার্টির নৈতিক পরাজয় বলে বর্ণনা করে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবালের পদত্যাগ দাবি করেছেনI

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজI 

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*