তিন একাদশ শ্রেনীর স্কুল ছাত্রীকে রাস্তা থেকে জঙ্গলে টেনে গেল দুষ্কৃতীরা ।


সাত সকালে দুষ্কৃতীরা রাস্তা থেকে জঙ্গলে টেনে গেল তিন একাদশ শ্রেনীর স্কুল ছাত্রীকে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার সকাল ৯.৩০ নাগাদ ঝাড়গ্রাম শহরে। ওই দুস্কৃতিদের হাত থেকে এক ছাত্রী পালিয়ে এলেও বাকী দুই ছাত্রী আসতে পারে নি। ঝাড়গ্রাম থানার পুলিশ ওই দুই ছাত্রীর খোঁজে চিরুনি তল্লাশী শুরু করেছে।

          সুত্রের খবর পালিয়ে আসা ওই ছাত্রী জানিয়েছেন তারা তিন জন প্রতিদিনের মত সকাল ৯.৩০নাগাদ প্রাইভেট থেকে বাড়ি ফিরছিল সেই সময় রাস্তার থেকে কয়েকজন দুষ্কৃতী তাদের কে জোর করে জঙ্গলে টেনে নিয়ে যায়। ছাত্রীটি জানায় তারা প্রত্যেকেই ঝাড় গ্রামের বিশ্বভারতী স্কুলের একাদশ শ্রেনীর ছাত্রী এবং সকলের বাড়ি ঝাড়গ্রাম থানার লেদাবহড়াতে। ওই ছাত্রী জানায় যে, তারা টিউশন থেকে বাড়ি ফেরার পথে একলব্য স্কুলের সামনে হঠাৎই  তিন যুবক মুখ হাত ধরে জঙ্গলে টেনে নিয়ে যায়। আমি কোন মতে পালিয়ে এলেও আমার দুই বান্ধবী এখনও ওদের ওখানে রয়েছে।

ওই ছাত্রী পুলিশকে আরো জানান যে ওই তিন যুবকের মুখ কালো কাপড় ও মাফলারে বাধা ছিল, ফলে আমার পক্ষে ওত তাড়া তাড়ি হুড়ো হুড়ির সময় ওদের মুখ চেনা সম্ভব হয়নি। তবে ঝাড়গ্রাম থানার পুলিশ প্রাথমিক তদন্তের পর জানিয়েছেন যে, ওই তিন যুবক হয়তো ওই তিন ছাত্রীর পূর্ব পরিচিত ছিল।তবে পুলিশের অনুমান   পুরনো শত্রুতার কারনে এই ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে ওই তিন যুবক।

তবে প্রশ্ন এখানেই কি করে একটা ওপেন রাস্তার মাঝখান থেকে দুস্কৃতিরা ওই তিন কিশোরীকে তুলে নিয়ে গেল জঙ্গলে,। এখানেই রাজ্যের নারী সুরক্ষা আরো একবার প্রশ্নের মুখে পতিত হল। তবে এই ঘটনার পর প্রশাসন নড়েচড়ে বসেছে। এদিকে ওই দুই ছাত্রীর পরিবারই এই ঘটনার পর প্রচন্ড আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে ,সেই সাথে স্থানীয় বাসিন্দারাও প্রচন্ড টেনশনে রয়েছে।


One thought on “তিন একাদশ শ্রেনীর স্কুল ছাত্রীকে রাস্তা থেকে জঙ্গলে টেনে গেল দুষ্কৃতীরা ।”

Leave a Reply