হজে ভর্তুকি তুলে দেওয়ায় যে তিনটি সুবিধা পাবেন মুসলিম সমাজ ৷


গতকাল কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী মুক্তার আব্বাস নকভি এক বিবৃতিতে এবছর থেকে হজে ভর্তুকি সম্পূর্ণরূপে তুলে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন ৷ ২০১২ সালের সুপ্রিম কোর্টের এক রায়ের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন ২০২২ সালের মধ্যে সুপ্রিম কোর্ট হজে ভর্তুকি সম্পূর্ণরূপে তুলে দেওয়ার কথা বলেছিলেন ৷ সুপ্রিমকোর্টের সেই রায়কে সম্মান জানিয়ে আমাদের সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ৷ আদতে এই ভর্তুকি মুসলিম সমাজের কোন উপকারেই আসছিল না ৷ এখন থেকে এই ভর্তুকি সংখ্যালঘুদের পড়াশোনা এবং জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে কাজে লাগানো হবে ৷

যদিও সরকারের এই সিদ্ধান্তে সমাজের বিভিন্ন স্তর থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে ৷ ভর্তুকি তুলে দেওয়া প্রসঙ্গে “শিয়া পার্সোনাল ল বোর্ডের” তরফে জানানো হয় এখন থেকে গরিব ধর্মপ্রাণ মুসলমানগন আর হজে যেতে পারবেন না ৷

তবে হজে ভর্তুকি তুলে দেওয়ার পরেও যে তিনটি ক্ষেত্রে মুসলিমদের এবং হজ যাত্রীদের সুবিধা হবে তা হল –

১. যেহেতু সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুযায়ী ২০২২ সালের মধ্যে হজের ভর্তুকি তুলতেই হত, সেই হিসেবে এখন থেকেই সেটা তুলে দিয়ে সেই টাকা মুসলিম ছেলে মেয়েদের পড়াশোনা এবং জীবন যাত্রার মান  উন্নয়নে কাজে লাগলে তা পিছিয়ে পড়া মুসলিম সমাজের পক্ষে উপকারই হবে ৷ প্রতি বছর হজে ভর্তুকি হিসেবে কেন্দ্রীয় সরকার প্রায় ৭০০ কোটি টাকা ভর্তুকি দিত ৷ এই বিশাল অংকের টাকা যদি গরিব মুসলিম ছেলে-মেয়েদের পড়াশোনায় কাজে লাগানো যায় তবে অবশ্যই সেটা যুগান্তকারী পদক্ষেপ হবে ৷

২. সাধারণত সৌদিআরবে যাওয়ার বিমান ভাড়া ৩২০০০ টাকা কিন্তু হজের সময় সেই ভাড়া ৬৫০০০ টাকা থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হয়ে যায় ৷ আর এই পুরো টাকাটাই যায় এয়ার ইন্ডিয়ার ঘরে ৷ ফলে ভর্তুকি তুলে দেওয়ার ফলে এই ভাড়া অনেকটাই কমে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন “অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের” জেনারেল সেক্রেটারি মওলানা ওয়ালী রহমানী ৷

৩. কেন্দ্রীয় সরকার হজযাত্রীদের সুবিধা অসুবিধা খতিয়ে দেখার জন্য একটি ড্রাফট কমিটি গঠন করেছিলেন এই কমিটি কেন্দ্রীয় সরকারকে হজ যাত্রীদের সুবিধার জন্য কিছু উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে আবেদন রাখেন ৷ এগুলির মধ্যে অন্যতম হল জাহাজে করে হজে গমন ৷ জলপথে হজে গেলে হজ যাত্রীদের খরচ অনেকটাই কমে যাবে ৷ ফলে কেন্দ্রীয় সরকারও এতে রাজি হয়ে যায় এবং ইতিমধ্যেই ভারত সরকার, সৌদি সরকারের সঙ্গে কথা বলে তাদের সম্মতিও আদায় করে নিতে পেরেছেন ৷ ফলে ভর্তুকি ছাড়াও খুব কম খরচে সহজেই হজ যাত্রীরা এখন থেকে হজে যেতে পারবেন ৷

নিয়মিত আপডেট পেতে এখানে ক্লিক করে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *