বাড়িতে সহজ রসগোল্লা তৈরির রেসিপি

ছবি- রসগোল্লা বানানোর রেসিপি

যারা দেশে আছেন এবং যারা বিদেশে আছেন সকল বন্ধুকে সুস্থ থাকার কামনা করে  আমার  এই রান্নার ব্লগে আপনাদের স্বাগত জানাই।বন্ধুরা আজ আমি আপনাদের সামনে উপস্থাপিত করতে চলেছি “রসগোল্লা তৈরির রেসিপি”। বন্ধুরা এর আগে আমি বিভিন্ন রেসিপি তৈরি পদ্ধতি তুলে ধরেছে কিন্তু আজ আমি আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি মিষ্টান্ন পর্বের সেরা আকর্ষণ “রসগোল্লা বানানোর রেসিপি নিয়ে। আপনারা এমন সন্ধ্যে ওয়াকিবহাল যে বাঙালিরা মিষ্টি খেতে ভালোবাসে এবং সেই মিষ্টি যদি রসগোল্লা হয় তাহলে তো আর কথাই নেই। রসগোল্লা তৈরিতে বাংলা নাম চির স্মরণীয়। আপনারা সবাই জানেন কলকাতার রসগোল্লা পৃথিবীর বিখ্যাত। আর এই জগত বিখ্যাত মিষ্টি  আপনারা বাড়িতে বসেই তৈরি করতে পারেন অতি সহজে। তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নিই রসগোল্লা বানাতে কি কি উপকরণের দরকার হয় ও কিভাবে বানাতে হয় –

রসগোল্লা বানানোর উপকরণ :-

রসগোল্লা তৈরি করতে উপকরণ হিসেবে যে জিনিসগুলি আপনাদের সামনে আমি তুলে ধরবো তা নিম্নে আলোচিত হলো-
১:-  ছানা নিতে হবে ১ কেজি।
২:-  সবেদা নিতে হবে 200 গ্রাম।
৩:-  সঙ্গে নিতে হবে চিনি ১.৫ কেজি।
৪:-  আর নিতে হবে ময়দা ৫০০ গ্রাম।
৫:-  আর নিতে হবে বনস্পতি বা বাদাম তেল 2 কেজি।
                  বন্ধুরা রসগোল্লা বানাতে যা উপকরণ প্রয়োজন তা মোটামুটি ভাবে রেডি।এবারে মিষ্টির  রাজা ‘রসগোল্লা কিভাবে বানাতে হয়’ তা জেনে নিন-

রসগোল্লা বানানোর রেসিপি :

 সর্বপ্রথমে চিনির সঙ্গে জল মিশিয়ে  ভালোকরে জ্বালান। চিনির জল গাঢ় এবং যথেষ্ট পরিমান মিষ্টি হলে গ্যাসের ফ্লেম একদম কম করে দিন। মনে রাখবেন চিনির জল যেন বেশি গাড় না হয়।
এবার ছানার সঙ্গে ময়দা ও সবেদা মিশিয়ে ভালো করে মাখুন। তারপর লেচি কেটে  সুন্দর গোল গোল করে গরম তেলে ছাড়ুন।  তেলের মধ্যে দিলে  যখন ফুলে ফেঁপে উঠবে তখন তেল থেকে তুলে  চিনির রসে ফেলুন। বন্ধুরা ফেপে ফুলে ওঠা মিষ্টি চিনির রসে ফেললেই তৈরি হয়ে যাবে আপনার বহু আকাঙ্খিত রসগোল্লা। চিনির রসের মধ্যে Rosgolla  কমপক্ষে ৪-৫ ঘন্টা ভিজিয়ে রাখুন। এবার আপনি খাবার টেবিলে বসে মিষ্টির  রাজা রসগোল্লা পরিবেশন করুন। এতক্ষণ ধরে আমার এই রানার ব্লগটি পড়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।
আরো পড়ুন –

Leave a Reply